নির্মাতার খায়েশ পূরণ না করায় বেকায়দায় সোহিনী

নির্মাতার খায়েশ পূরণ না করায় বেকায়দায় সোহিনী

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের অভিনেত্রী সোহিনী সরকার। টেলিভিশন মিডিয়ায় কাজ শুরু করলেও বর্তমানে চলচ্চিত্রের নিয়মিত মুখ।

২০১৩ সালে ‘রূপকথা নয়’ সিনেমার মাধ্যমে বড় পর্দায় আত্মপ্রকাশ করেন তিনি।
টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র মিলিয়ে অভিনয়ে সোহিনীর ক্যারিয়ার প্রায় দেড় দশকের।

তবে শুরুটা মোটেও সহজ ছিল না। ক্যারিয়ারের প্রথম দিকে পরিচালকের অনৈতিক লালসার শিকার হতে হতে বেঁচে গিয়েছিলেন এ অভিনেত্রী।

সম্প্রতি সেই অভিজ্ঞতার কথা জানালেন সোহিনী।
তিনি বলেন, ‘নারী হওয়ার কারণে ছোটবেলা থেকেই এ বিষয়টার মুখোমুখি হতে হয়।

সেটা কেবল এই পেশায় নয়। স্কুলে যাওয়ার সময় অটোতে বসে, বাসে উঠে, ট্রেনে, এরকম বহু জায়গায় বহু অভিজ্ঞতা সবারই কিছু না কিছু হয়েছে। ’
এ অভিনেত্রী বলেন, ‘মিডিয়ায় কাজ করতে এসে নিজেকে সবসময় গুটিয়ে রাখতাম। সবসময় নিজেকে বাঁচিয়ে রাখারই চেষ্টা করেছি। আমি যখন টিভি সিরিয়াল করেছি, তখন ভালো মানুষ যেমন পেয়েছি, তেমনি বাজে মানুষও দেখেছি। যারা অকারণে একটু স্পর্শ করতে চায়। ’

সোহিনী যোগ করে বলেন, ‘এতে যদি সাড়া না দেই, তাহলে শুটিং ফ্লোরে চিৎকার-চেঁচামেচি আর বকাঝকা করত। এটা প্রথম দিকে বুঝতে পারিনি। কেন আমার সঙ্গে এমনটা করছে। বকাঝকার পর আবার যখন মেকআপ রুমে যাচ্ছি, সে আমার সঙ্গে খুব আন্তরিক হওয়ার চেষ্টা করছে। যাতে তার জালে খুব সহজেই ধরা দেই। ’

সোহিনী জানান, তার সঙ্গে এমনটা হয়েছিল ২০০৫-০৬ সালের দিকে। কিন্তু তখন সোশ্যাল মিডিয়া এত সরব ছিল না বিধায় সেভাবে বলতে পারেননি। অবশ্য পরবর্তীতে তিনি যখন প্রতিষ্ঠা পেয়ে যান, তখন আর ওই ধরণের মানুষকে দেখেননা।

এ অভিনেত্রীর মতে, ওইসব লোকের মধ্যে কাজের কোনও যোগ্যতা ছিল না। তাই তারা হারিয়েও গেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *