পল্লীবন্ধুর কোনো কাজের স্মৃতি মুছে ফেলার চক্রান্ত মেনে নেওয়া হবে না: সালমা ইসলাম এমপি

পল্লীবন্ধুর কোনো কাজের স্মৃতি মুছে ফেলার চক্রান্ত মেনে নেওয়া হবে না: সালমা ইসলাম এমপি

জাতীয় মহিলা পার্টির আহ্বায়ক, সাবেক মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি বলেছেন, পল্লীবন্ধুর শাসনামল ছিল ইসলামের জন্য স্বর্ণযুগ। রেডিও টিভিতে আজান প্রচার, ইসলামিক রাষ্ট্র, শুক্রবার ছুটি, রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম, মসজিদের বিদ্যুৎ বিল মওকুফ, জাকাত বোর্ড গঠনসহ নানান ধরনের কাজ করেছেন পল্লীবন্ধু এরশাদ। কিন্তু এখন রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিলের ষড়যন্ত্র হচ্ছে, তবে তা জাতীয় মহিলা পার্টি রুখে দেবে। পল্লীবন্ধুর কোনো কাজের স্মৃতি মুছে ফেলার ষড়যন্ত্র মেনে নেওয়া হবে না।

শনিবার বিকাল সাড়ে ৫টায় সার্কিট হাউস এলাকায় জাতীয় পার্টির অস্থায়ী কার্যালয়ে জাতীয় মহিলা পার্টির মাদারীপুর জেলা শাখার কর্মী সম্মেলন ২০২১ অনুষ্ঠিত হয়। এতে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

সালমা ইসলাম বলেন, নারীদের অধিকার আদায়ে পল্লীবন্ধু নানান পদক্ষেপ নিয়েছিলেন- মাতৃত্বকালীন ছুটি, নারী ও শিশু নির্যাতন আইন, ধর্ষণ এবং অ্যাসিড নিক্ষেপের কঠিন সাজা।

তিনি বলেন, জিএম কাদেরের নেতৃত্বে আমরা জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় নিয়ে যাব। সেই সুদিন খুব তাড়াতাড়ি আমাদের সামনে আসবে। নারীশিক্ষার অগ্রযাত্রার জন্য জাতীয় পার্টি কাজ করে যাচ্ছে। আমরা ক্ষমতায় এলে নারীদের অধিকার নিশ্চিত করব। তাই আপনাদের জাতীয় মহিলা পার্টির পতাকা তলে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

জাতীয় মহিলা পার্টির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম আরও বলেন, সংস্কার ও উন্নয়নের সোনালি অতীত আর স্বচ্ছতার প্রতিচ্ছবি জিএম কাদেরের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় আসবে।

বিশেষ অতিথি যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক তিতাস মস্তফা বলেন, বাজারে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির পাগলা ঘোড়া দ্রুতগতিতে ছুটে চলেছে। মধ্যবিত্ত, নিম্ন-মধ্যবিত্ত দরিদ্র মানুষ আজ দিশাহারা। দেশে সরকার আছে কিনা আমাদের সন্দেহ হয়। প্রতিমন্ত্রী মুরাদ সাহেব ইসলাম ও এরশাদকে নিয়ে যে কটাক্ষ করেছেন সেজন্য তাকে ক্ষমা চাইতে হবে। তার বহিষ্কার দাবি করছি।

জাতীয় পার্টির মাদারীপুর জেলা শাখার আহ্বায়ক হাওলাদার মুহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব লিয়াকত খানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন- কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক জহিরুল ইসলাম মিন্টু, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক তিতাস মস্তফা, শারমিন পারভীন লিজা, কেন্দ্রীয় সদস্য হাসনা হেনা, সাদিয়া শারমিন ও সীমানা আমির প্রমুখ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *