তাইওয়ানে বহুতল ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

তাইওয়ানে বহুতল ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

তাইওয়ানের একটি বহুতল ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে কমপক্ষে ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় কাওহসিয়ুং এলাকার একটি ভবনে প্রাণহানির এই ঘটনা ঘটে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্টের খবরে বলা হয়, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ভোর ৩টার দিকে তাইওয়ানের দক্ষিণাঞ্চলীয় কাওসিউং শহরের একটি ১৩তলা ভবনে এ অগ্নিকাণ্ডের সূচনা হয়। ওই বহুতল ভবনটি আবাসিক ও বাণিজ্যিক কাজে ব্যবহৃত হতো।

প্রাথমিকভাবে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, ওই বহুতল ভবনটির দ্বিতীয় তলায় সর্বপ্রথম আগুনের সূত্রপাত হয়। এরপর সেটিতাইওয়ানে বহুতল ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নিহত অন্তত ২৫
তাইওয়ানের একটি বহুতল ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে কমপক্ষে ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় কাওহসিয়ুং এলাকার একটি ভবনে প্রাণহানির এই ঘটনা ঘটে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্টের খবরে বলা হয়, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ভোর ৩টার দিকে তাইওয়ানের দক্ষিণাঞ্চলীয় কাওসিউং শহরের একটি ১৩তলা ভবনে এ অগ্নিকাণ্ডের সূচনা হয়। ওই বহুতল ভবনটি আবাসিক ও বাণিজ্যিক কাজে ব্যবহৃত হতো।

প্রাথমিকভাবে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, ওই বহুতল ভবনটির দ্বিতীয় তলায় সর্বপ্রথম আগুনের সূত্রপাত হয়। এরপর সেটি পুরো ভবনে ছড়িয়ে পড়ে। এ পর্যন্ত অন্তত ২৫ জনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় কর্মকর্তারা। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

শহরটির দমকল প্রধান লি চিং-হসিউ ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ১৩টি মরদেহ সরাসরি মর্গে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া হাসপাতালে পাঠানো আরও ৫৫ জনের মধ্যে ১৪ জনের শরীরে জীবিত থাকার কোনো লক্ষণ দেখা যায়নি।

হাসপাতালের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো মৃতের সংখ্যা ঘোষণা করা হয়নি। পুরো ভবনে ছড়িয়ে পড়ে। এ পর্যন্ত অন্তত ২৫ জনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় কর্মকর্তারা। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

শহরটির দমকল প্রধান লি চিং-হসিউ ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ১৩টি মরদেহ সরাসরি মর্গে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া হাসপাতালে পাঠানো আরও ৫৫ জনের মধ্যে ১৪ জনের শরীরে জীবিত থাকার কোনো লক্ষণ দেখা যায়নি।

হাসপাতালের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো মৃতের সংখ্যা ঘোষণা করা হয়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *