তাইওয়ানের বাহিনীকে ‘গোপনে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে’ যুক্তরাষ্ট্র

তাইওয়ানের বাহিনীকে ‘গোপনে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে’ যুক্তরাষ্ট্র

যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ বাহিনী ও নৌবাহিনীর সেনারা তাইওয়ানের বাহিনীকে অন্তত এক বছর ধরে গোপনে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে বলে দাবি করা হয়েছে মার্কিন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের বরাত দিয়ে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম আনাদোলু এ তথ্য জানায়।

নাম প্রকাশ না করে মার্কিন এক কর্মকর্তা বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ একটি অপারেশন ইউনিট ও নৌবাহিনীর একটি দল গোপনে তাইওয়ানে অঞ্চলটির বাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। চীনের আগ্রাসন ঠেকাতে এ দ্বীপের প্রতিরক্ষা সক্ষমতা বাড়ানোর অংশ হিসেবে সেখানে তাদের মোতায়েন করা হয়েছে।

তাইওয়ানের আকাশসীমায় গত কয়েক দিনে ১৫০ বারের কাছাকাছি যুদ্ধবিমান পাঠানোর কারণে চীনের সঙ্গে এ অঞ্চলের উত্তেজনার মধ্যে প্রতিবেদনটি সামনে এলো।

তাইওয়ানের নিজস্ব সংবিধান, সামরিক বাহিনী এবং গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত নেতা রয়েছে। অঞ্চলটি নিজেকে সার্বভৌম রাষ্ট্র বলে মনে করে সরকার। অন্যদিকে চীন দাবি করে তাইওয়ান তাদের নিজস্ব ভূমি। তাইওয়ানের সঙ্গে অন্তত ১৫ দেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে।

মার্কিন গণমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনে বলা হয়, দুই ডজনের কাছাকাছি বিশেষ বাহিনীর সদস্যরা ‘তাইওয়ানের স্থলবাহিনীর ছোট একটি দলকে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে’।

এক মার্কিন কর্মকর্তা বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর সেনারা স্থানীয় নৌসেনাদের ছোট জলযান সম্পর্কিত প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। মার্কিন সেনারা তাইওয়ানে তাদের এ কার্যক্রম চালিয়ে আসছেন অন্তত এক বছর ধরে।’

গত বছরের নভেম্বরে তাইওয়ানের সৈন্যদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য মার্কিন মেরিনদের আগমনের ঘোষণা দেয়। ১৯৭৯ সালে আমেরিকা ও তাইওয়ান দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক ছিন্ন করার পর প্রথমবারের মতো মার্কিন সৈন্যরা দ্বীপে ফিরে এসেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *