৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে সেঁজুতি ট্রাভেলসকে নোটিশ

৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে সেঁজুতি ট্রাভেলসকে নোটিশ

যাত্রী হয়রানির ঘটনায় ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে সেজুঁতি ট্রাভেলসের মালিককে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) আইন, আদালত ও মানবাধিকার বিষয়ক সাংবাদিকদের সংগঠন ল’ রিপোর্টার্স ফোরামের (এলআরএফ) সভাপতি মাশহুদুল হক এবং সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ইয়াছিনের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোতাহার হোসেন সাজু এ নোটিশ পাঠান।

সেঁজুতি ট্রাভেলসের ম্যানেজিং ডিরেক্টর দীনেশ চন্দ্র দাস ছাড়াও ম্যানেজারকে এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

এলআরএফের সদস্যদর পিকনিকে ভাড়া নেওয়া সেঁজুতি ট্রাভেলসের এসি গাড়িতে বৃষ্টির পানি পড়ে সদস্যরা ভিজে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত এবং প্রয়োজনীয় মালামাল ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় এ নোটিশ দেওয়া হয়।

অ্যাডভোকেট মোতাহার হোসেন সাজু বলেন, গত ২ সেপ্টেম্বর থেকে ৫ সেপ্টেম্বর ল’ রিপোর্টার্স ফোরামের বার্ষিক পিকনিকের জন্য সেঁজুতি ট্রাভেলসের তিনটি এসি বাস ভাড়া করা হয়। রিজার্ভ করা সত্ত্বেও যাত্রা শুরুর দিন এবং ফেরার দিন সঠিক সময়ে বাস সরবরাহ করা হয়নি। এছাড়াও চুক্তি অনুযায়ী ভালো বাস সরবরাহ না করে ফিটনেসহীন বাস সরবরাহ করায় বৃষ্টিতে বাসের ভেতরে পানি ঢোকে। এতে বসে বা দাঁড়িয়ে থাকা অসম্ভব হয়ে পড়ে। এমনকি বাক্সের ভেতরে থাকা মালামালও ভিজে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এতে সংগঠনটির সদস্যরা বিশাল ক্ষতির মুখে পড়েন। বৃষ্টিতে ভেজার কারণে সদস্য এবং শিশুসহ তাদের পরিবারের সদস্যরা জ্বরাক্রান্ত হয়।

এমনকি ফেরার দিন তৃতীয় বাসটি হোটেলের সামনে পৌঁছাতে প্রায় দুই ঘণ্টা দেরি করে। এর ফলে রাঙামাটির অসহ্য গরমের মধ্যে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে পুনরায় হোটেল রুম ভাড়া করে সেখানে অবস্থান করায় সংগঠনের আর্থিক ও সদস্যরা শারীরিকভাবে ক্ষতির মুখোমুখি হন।

রাঙামাটি থেকে ফেরার সময় বাস ভাড়া চুক্তির অবশিষ্ট অর্থ পরিশোধের জন্য মাঝ রাস্তায় বাস থামানো হয় এবং ভাড়ার টাকা না দিলে বাসে তেল ভর্তি করা সম্ভব হবে না বিধায় টাকা আদায়ে বাধ্য করে বাস কর্তৃপক্ষ। ফলে চুক্তি অনুসারে ভালো বাস সরবরাহ না করায় চুক্তিভঙ্গ এবং মৌলিক অধিকার লঙ্ঘন করা হয়েছে। এতে করে সংগঠনটির সদস্য এবং তাদের পরিবার আর্থিকভাবে ক্ষতি এবং দুর্দশার শিকার হয়েছেন।

তাই উক্ত নোটিশ পাওয়ার ৭ দিনের মধ্যে সংগঠনটিকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৫০ লাখ টাকা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। অন্যথায় সেঁজুতি ট্রাভেলসের মালিকসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান আইনজীবী মোতাহার হোসেন সাজু।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *