ঘরের মাঠে ম্যাচের ৯৬ সেকেন্ডেই বার্সার গোল (ভিডিও)

মেসিবিহীন বার্সেলোনা অনেকটাই ছন্দহীন হয়ে পড়েছে। লা লিগায় এখন পর্যন্ত খেলায় চতুর্থ স্থানে দলটি।

সোমবার রাতে সেই বার্সাকে তাদেরই ঘরের মাঠে কঠিন চ্যালেঞ্জ ছুড়েছিল গেটাফে। আর সেই চ্যালেঞ্জ জয় করল বার্সা।  দলে সদ্য যোগদানকারী মেমফিস ডিপাইয়ের গোলে জয় নিশ্চিত করে বার্সা।

ক্যাম্প ন্যুয়ে রোববার স্থানীয় সময় বিকালে লা লিগার ম্যাচটি ২-১ গোলে জিতেছে বার্সেলোনা। মাত্র ৯৬ সেকেন্ডে গেটাফের জালে বল জড়িয়ে দিল বার্সা।

ম্যাচে আক্রমণভাগে ভুগতে দেখা গেছে বার্সেলোনাকে। গোলের উদ্দেশে মাত্র সাতটি শট নিতে পেরেছে বার্সা, যার তিনটি ছিল লক্ষ্যে। ২০০৩-০৪ মৌসুমের পর থেকে লা লিগায় ঘরের মাঠে এটি তাদের যৌথভাবে সর্বনিম্ন।

অথচ মাত্র ৩৩ শতাংশ সময় বল দখলে রাখা গেটাফে শট নিয়েছে আটটি, যার তিনটি ছিল লক্ষ্যে।

ম্যাচ শুরু হতে না হতেই গোল পেয়ে যায় বার্সেলোনা। বাঁ দিক থেকে ডি-বক্সে নিচু বল বাড়ান জর্দি আলবা। একজনকে ফাঁকি দিয়ে বল জালে পাঠান সার্জিও রবের্তো।

মাত্র ৯৬ সেকেন্ডের গোলটি লা লিগায় গত ছয় বছরে বার্সেলোনার হোম ম্যাচে দ্রুততম। ২০১৫ সালের ১৮ এপ্রিল ভালেন্সিয়ার বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে জয়ের ম্যাচে ৫৪ সেকেন্ডে গোল করেছিলেন লুইস সুয়ারেস।

১৯তম মিনিটে দারুণ এক গোলে সমতায় ফেরে গেতাফে। কার্লোস আলেনার টাঙ্গে বল পাসিং করে বার্সার ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন সান্দ্রো রামিরেস। নান্দনিক এক গোল উপহার দেন তিনি।

৩০তম মিনিটে মেমফিসের নৈপুণ্যে আবারও এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। ফ্রেংকি ডি ইয়ংয়ের পাস পেয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পায়ের কারিকুরিতে প্রতিপক্ষকে ফাঁকি দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন ডাচ ফরোয়ার্ড।

২-১ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় বার্সা।

দ্বিতীয়ার্ধে ৬০তম মিনিটে আবারও সমতায় ফিরতে পারত গেটাফে। বার্সার গোলরক্ষক টের স্টেগেনের নৈপুণ্যে রক্ষা হয়। নিকোলো মাকসিমোভিসের জোরালো শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান তিনি।

সমতায় ফিরতে শেষ পাঁচ মিনিটে একচেটিয়া খেলে বার্সা শিবিরে আতঙ্ক ছড়ায় গেটাফে। যদিও বার্সার রক্ষণ আর ভেদ করতে পারেনি তারা।

ফলে রেফারির শেষ বাঁশিতে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন রোনাল্ড কোম্যানের শিষ্যরা। আর টানা তৃতীয়হারের তেতো স্বাদ নিয়ে ফিরল গেটাফে।

তিন ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে উঠল বার্সেলোনা। যথাক্রমে প্রথম তিনটি স্থানে থাকা রিয়াল মাদ্রিদ, সেভিয়া ও ভালেন্সিয়ার পয়েন্টও সমান ৭।

ম্যাচ হাইলাইটস দেখুন –

https://youtu.be/HPRD4UfjBu0

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *