হামলার পর কাবুল বিমানবন্দরে বিদেশিদের সরিয়ে নেওয়ার কাজ শুরু

হামলার পর কাবুল বিমানবন্দরে বিদেশিদের সরিয়ে নেওয়ার কাজ শুরু

কাবুল বিমানবন্দরে হামলার কয়েক ঘণ্টা পর সেখান থেকে বিদেশি নাগরিকসহ আফগানদের উদ্ধার করে আনার কাজ আবার শুরু হয়েছে।

দেড় সপ্তাহ আগে তালেবানের রাজধানী কাবুল দখল করে নেওয়ার পর আফগানিস্তান থেকে পালাতে যারা হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জড়ো হয়েছেন, তাদের লক্ষ্য করে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বোমা হামলা চালানো হয়। খবর বিবিসির।

বিমানবন্দরের বাইরে চালানো এ হামলায় ১৩ মার্কিন সেনা ও তিন ব্রিটিশ নাগরিকসহ ১৭০ জন নিহত এবং আরও ১৫০ জন আহত হয়েছেন বলে কাবুলের এক ঊর্ধ্বতন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

সাংবাদিকরা জানান, কাবুলের হাসপাতালগুলো আহত লোকজনে উপচে পড়ছে। তাদের চিকিৎসা দিতে সারা রাত ধরে কাজ করেছেন ডাক্তার ও নার্সরা। তালেবান ক্ষমতাদখলের পর হাসপাতালের লোকবলও অনেক কমে গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগন বলছে, নিহতদের মধ্যে রয়েছেন তাদের ১৩ সেনাসদস্য। এ ছাড়া আহত হয়েছেন আরও ১৫ সেনা।

হামলার কয়েক ঘণ্টা আগে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলোর সরকার কাবুল বিমানবন্দরে সন্ত্রাসী হামলার ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়ে তাদের নাগরিকদের বিমানবন্দর থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দিয়েছিল।

ইসলামিক স্টেট গ্রুপের আফগানিস্তান শাখা আইএস-কে এ হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হামলাকারীদের খুঁজে বের করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

হামলার পর শুক্রবার কাবুল বিমানবন্দর থেকে লোকজনকে উদ্ধার করার ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের অভিযান পুনরায় শুরু হয়েছে। এ জন্য তাদের হাতে খুব বেশি সময়ও নেই।

তালেবানের সঙ্গে হওয়া সমঝোতা অনুসারে ৩১ আগস্টের মধ্যে বিদেশি সৈন্যদের সরিয়ে নিতে হবে।

বিমানবন্দরে হামলার ঘটনায় রিপাবলিকান পার্টির নেতারা প্রেসিডেন্ট বাইডেনের কঠোর সমালোচনা করছেন।

সন্ত্রাসবিরোধী একজন বিশেষজ্ঞ এবং প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের শাসনামলের একজন বিশেষ দূত ন্যাথান সেলস বলেছেন, আরও হামলা যাতে না হয়, সে জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সৈন্যদের অনতিবিলম্বে কাবুল বিমানবন্দরের চারপাশের নিয়ন্ত্রণ নিতে হবে।

তিনি বলেন, ৩১ আগস্টের সময়সীমার ব্যাপারেও প্রেসিডেন্ট বাইডেনের চিন্তা করে দেখা দরকার।

ব্রিটিশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন ওয়ালেস বলেছেন, ব্রিটেনও কাবুল থেকে লোকজনকে উদ্ধারের চূড়ান্ত পর্যায়ের কাজ শুরু করেছে। তিনি জানান, শুক্রবার এক হাজারের মতো লোককে সরিয়ে এনেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *