যুদ্ধের সমাপ্তি’ ঘোষণা, শান্তিপূর্ণ আন্তর্জাতিক সম্পর্ক চায় তালেবান

যুদ্ধের সমাপ্তি’ ঘোষণা, শান্তিপূর্ণ আন্তর্জাতিক সম্পর্ক চায় তালেবান

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের দখল নিয়ে প্রেসিডেন্ট প্যালেসের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার পর যুদ্ধ শেষের ঘোষণা দিয়েছে সশস্ত্র গোষ্ঠী তালেবান। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন সৈন্যবাহিনী এরই মধ্যে আফগানিস্তান ত্যাগ করেছে। আজ সোমবার সকালেও পশ্চিমা দেশগুলোর নাগরিকদের ফিরিয়ে নিতে তোড়জোড় দেখা গেছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে এমনটি জানানো হয়েছে।

গতকাল রোববার তালেবান যোদ্ধারা কাবুলে ঢোকামাত্রই খবর বের হয়—প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি দেশ ছেড়েছেন। পরে জানা যায়, তিনি তাজিকিস্তান গিয়েছেন। ঘানি বলেছেন, রক্তপাত এড়াতে দেশত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

রোববার দুপুরের পর থেকেই কাবুল বিমানবন্দরে দেশত্যাগে ইচ্ছুক শত শত আফগান নাগরিককে অপেক্ষমান দেখা যায়।

যদিও তালেবান বলছে, যুদ্ধ এখানেই শেষ। আফগান সরকারের কর্মকর্তা-কর্মচারী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তা ও সদস্য এবং অতীতে তালেবানবিরোধী নানাবিধ কর্মকাণ্ডে জড়িতরা সঙ্গত কারণেই প্রাণভয়ে দেশত্যাগ করতে চাইছেন।

তালেবানের রাজনৈতিক কার্যালয়ের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাইম আলজাজিরা টেলিভিশনকে বলেছেন, ‘আজকের দিনটি আফগানিস্তানের জনগণ ও মুজাহিদদের জন্য মহান একটি দিন। ২০ বছরের ত্যাগ ও প্রচেষ্টার ফল দেখতে পাচ্ছে তারা। আল্লাহকে অশেষ ধন্যবাদ, দেশে যুদ্ধ বন্ধ হয়েছে।’

মোহাম্মদ নাইম বলেন, ‘অচিরেই আফগানিস্তানের নতুন শাসনপদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হবে। তালেবান কখনোই ঘরের কোণে বন্দি থাকতে চায়নি। আমরা শান্তিপূর্ণ আন্তর্জাতিক সম্পর্কগুলোও বজায় রাখতে চাই।’

নাইম বলেন, ‘আমরা আমাদের দেশ এবং জনগণের স্বাধীনতার জন্য লড়াই করছিলাম, সেই লক্ষ্যে পৌঁছে গিয়েছি। আমাদের দেশকে অন্য কোনো পক্ষের বিরুদ্ধে কাউকে ব্যবহার করতে দিব না আমরা। এবং আমরা অন্য কারও ক্ষতিসাধনও করতে চাই না।’

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *