জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে অসহায় বৃদ্ধ ও প্রতিবন্ধী শিশুদের পাশে র‌্যাব

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে অসহায় বৃদ্ধ ও প্রতিবন্ধী শিশুদের পাশে র‌্যাব


জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী ও ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া-মিলাদ ও খাবারের আয়োজন করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-৪।

শুক্রবার (১৩ আগস্ট) সকালে র‌্যাব-৪ এর কমান্ডিং অফিসার (সি.ও) ও অতিরিক্ত ডিআইজি মো. মোজাম্মেল হক ‘চাইল্ড এন্ড ওল্ড এইজ কেয়ার’-এর আশ্রয়ে থাকা ১৩৫ জন অসহায় বৃদ্ধা ও প্রতিবন্ধী শিশুর মাঝে খাবার বিতরণ করেন। এ আগে ব্যাটালিয়নের অধিনায়কের উপস্থিতিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও তার শহীদ পরিবারের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন।

চাইল্ড এন্ড ওল্ড এইজ কেয়ারের কার্যক্রম নিয়ে র‌্যাব-৪ এর কমান্ডিং অফিসার (সি.ও) ও অতিরিক্ত ডিআইজি মোঃ মোজাম্মেল হক বলেন, ‘এই প্রতিষ্ঠানটি তাদের কাজের মাধ্যমে গণমানুষের স্বীকৃতি লাভ করেছে। এই প্রতিষ্ঠান ডাস্টবিনে পড়ে থাকা শিশুকে তুলে এনে মায়ের আদরে লালন-পালন করছে। অনেক বৃদ্ধ মা-বাবা আছেন যাদেরকে পরিবার-পরিজনরা ত্যাগ করেছেন, কিন্তু এই প্রতিষ্ঠান তাদেরকে আদর-যত্নে প্রতি পালন করছেন। এটি একটি অনুসরণীয় দৃষ্টান্ত। আমি অনুরোধ করবো, এদেশে যারা বিত্তবান, সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে আসুন আমরা এগিয়ে আসি। মনে রাখতে হবে এখন যারা যুবক আছে, একদিন নিশ্চয় বার্ধক্য আসবে। আধুনিকতা ও উন্নতির সঙ্গে সঙ্গে আমাদের ছেলেমেয়েরা আমাদের ছেড়ে বিদেশে চলে যাচ্ছে। জীবনের শেষ সময়ে বাবা-মায়েরা একা হয়ে পড়ে। এই প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’

কমান্ডিং অফিসার (সি.ও) আরও বলেন, ‘চাইল্ড এন্ড ওল্ড এইজ কেয়ারের সঙ্গে প্রথম থেকেই আছি। সুখে দুঃখে সব সময় পাশে থাকার চেষ্টা করি। এই প্রতিষ্ঠানকে বিভিন্ন সময় চাল, ডাল, আটা দিয়ে যতুটুক পারি আমার সহযোগিতা করার চেষ্টা করি। কয়েকদিন আগে এখানে একটা সমস্যা হয়েছে। এটি পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব কঠোরভাবে দেখছে। আমরা হুশিয়ার করে দিতে চাই, এধরণের মানব সেবামূলক প্রতিষ্ঠানে যদি কেউ আক্রমণ বা হামলা চালানোর চেষ্টা করে তাদের কালো হাত ভেঙে দেওয়া হবে এবং তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।’

অতিরিক্ত ডিআইজি মো. মোজাম্মেল হক আরও বলেন, ‘সব ধর্মে বলা আছে, পাপ করলে পাপের শাস্তি আছে। যদি কোনো সন্তান এমন অমানবিক আচরণ তার বাবা-মায়ের সঙ্গে করে, বিজ্ঞানের ব্যাখ্যায় বলুন আর ধর্মীয় ব্যাখায় বলুন একদিন না একদিন তাকে এমন পরিণতি বরণ করতে হবে। কাজেই আসুন, বৃহত্তর স্বার্থে আমাদের বাবা-মাকে আমরা আগলে রাখি। কেননা তারা আমাদের কাছে বটবৃক্ষের মতো। তাদেরকে দেখাশোনা করা আমাদের দায়িত্ব। বাবা-মা যেমন ছোট বেলায় আমাদের পরিচর্যা করেছে, বাবা-মা বৃদ্ধ হলে শিশুর মতো হয়ে যায়, তাই তাদেরকে পরিচর্যা করার দায়িত্বটা সন্তানদেরই নিতে হবে, এটাই মানবিকতা, এটাই মূ্ল্যবোধ।’

র‌্যাব ৪ এর এমন সহযোগিতার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে চাইল্ড এন্ড ওল্ড এইজ কেয়ারের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মিল্টন সমাদ্দার বলেন, ‘এই প্রতিষ্ঠানের দীর্ঘ পথচলা। আমরা এখন পর্যন্ত ৭শ বেশি মানুষকে রাস্তার থেকে তুলেছি। দুই শতাধিক অজ্ঞাত মানুষকে দাফন করেছি। কয়েক শতাধিক মানুষকে তাদের পরিবারের কাছে পৌঁছে দিতে পেরেছি। এই সব কাজে র‌্যাব দীর্ঘদিন ধরে আমাদের সহযোগিতা করে আসছে। এই কাজ নিশ্চয়ই আমার একার কাজ না, এই প্রতিষ্ঠান চলছে সবার সহযোগিতা। আমি তো মূলত কেয়ারটেকার।’

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *