নিখোঁজের ৮ দিন পর গাছে বাঁধা যুবকের অর্ধগলিত লাশ

নিখোঁজের ৮ দিন পর গাছে বাঁধা যুবকের অর্ধগলিত লাশ

ঢাকার ধামরাইয়ে নিখোঁজের ৮ দিন পর গাছে বাঁধা অবস্থায় মো. শাহাদাৎ হোসেন (২৪) নামে এক যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে ধামরাই থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সকালে ধামরাই উপজেলার যাদবপুর ইউনিয়নের আমরাইল পূর্বপাড়ার একটি পরিত্যক্ত ভিটা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত শাহাদাৎ হোসেন বারইপাড়া একটি বেসরকারি কোম্পানির কারখানায় চাকরি করতেন। নিখোঁজ শাহাদাৎ হোসেন ধামরাই উপজেলার যাদবপুর ইউনিয়নের আমরাইল গ্রামের মো. কহিনুর ইসলামের ছেলে।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ জানায়, ১ আগস্ট শাহাদাৎ হোসেন সকাল ৯টার দিকে কাউকে কিছু না বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে যান। তিনি ওই দিন বাড়িও আসেননি, ফোনেও বাড়ির কারও সঙ্গে যোগাযোগ করেননি। ফলে পরিবারের লোকজন চিন্তিত হয়ে পড়েন। বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে দুই দিন পর তার নিজ মোবাইল ফোনে শাহাদাৎ মায়ের সঙ্গে কথা বলেন।

এ সময় তিনি মাকে জানান, এখন অফিস বন্ধ, তাই আমি কয়েক দিন বাড়িতে আসব না। অফিস খুললেই আমি বাড়িতে চলে আসব। এরপর থেকে শাহাদাৎ হোসেনের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। পরে তাকে ফোনে পাওয়া না গেলে কালিয়াকৈর থানায় এ ব্যাপারে একটি জিডি করে তার পরিবারের লোকজন।

বৃহস্পতিবার সকালে গ্রামবাসী আমরাইল গ্রামের পূর্বপাড়ার একটি পরিত্যক্ত ভিটায় কাঁচা পাটের রশি দিয়ে গাছের সঙ্গে বাঁধা অবস্থায় শাহাদাৎ হোসেনের অর্ধগলিত লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেন। পরে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে ধামরাই থানার ওসি মো. আতিকুর রহমান আতিক বলেন, লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানীর হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে বলা যাবে তাকে কীভাবে হত্যা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *