শাবানা ভদ্রমহিলা, পরীমনি শুধুই মহিলা

শাবানা ভদ্রমহিলা, পরীমনি শুধুই মহিলা’

মাদক মামলায় গ্রেফতার হয়ে রিমান্ডে থাকা ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা পরীমনিকে নিয়ে চর্চা হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গেও।

কলকাতার গণমাধ্যমেও তাকে নিয়ে সংবাদ হচ্ছে। পরীমনিকে গ্রেফতার ও তার বাসায় মাদক পাওয়া নিয়ে মন্তব্য করছেন টালিউডের শিল্পীরা। এদের মধ্যে অন্যতম প্রবীণ অভিনেতা বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়।

টালিউড সিনেমার এই খলঅভিনেতার মতে, অভিনেত্রী শাবানা ভদ্রমহিলা আর পরীমনি শুধুই মহিলা। বিপ্লবের ভাষ্য, ওই অভিনেত্রীর (পরীমনি) বিষয়ে প্রকাশ হওয়া সব রটনাই মিথ্যে নয়। কিছু না থাকলে একজনের নামে এত বদনাম শোনা যায়!

কলকাতার আনন্দবাজার অনলাইনকে এক সাক্ষাৎকারে পরীমনিকে নিয়ে এমন সব মন্তব্য করেন ‘রক্ত’ সিনেমায় তার সঙ্গে অভিনয় করা বিপ্লব চট্টপাধ্যায়।

পরীমনির বিষয়ে কতটুকু জানেন প্রশ্নে বিপ্লব বলেন, ‘পরীমনির মতো নারীর সঙ্গে পর্দা ভাগ করার কোনো প্রশ্নই ওঠে না! নাচের একটি দৃশ্যে এক ফ্রেমে ছিলাম। এই পর্যন্তই!’

কলকাতার একাধিক অভিনেতা নাকি বাংলাদেশে গেলে পরীমনির সঙ্গে দেখা করতে যান- এমন প্রশ্নে বিপ্লব বলেন, ইন্ডাস্ট্রির অন্য কারোর খবর রাখি না। ‘আমি ‘রক্ত’ সিনেমার শুটিং করেছিলাম কলকাতায়। তাই বাংলাদেশে যাওয়া বা পরীমনির বাসায় যাওয়ার প্রশ্নই ওঠে না। কাজের সূত্রে সে দেশে গেলেও পরীমনির বাড়িতে যাইনি কখনো।’

এরপর ঢাকাই ছবির কিংবদন্তি অভিনেত্রী শাবানার প্রশংসা করেন বিপ্লব। তিনি বলেন, ‘শাবানা আক্ষরিক অর্থেই ভদ্রমহিলা। উনার স্বামীর সঙ্গেও আলাপ আছে আমার। তারকা দম্পতির কোনো তুলনা হয় না। কিন্তু পরীমনিকে মহিলার বাইরে অন্য কিছু বলতে রাজি নই।’

 

পরীমনি সব অভিযোগ থেকে মুক্তি পেয়ে ফের সিনেমায় ফিরলে তার সঙ্গে অভিনয় করবেন? এমন প্রশ্নে হ্যাঁ বোধক জবাবই দিলেন বিপ্লব। বললেন, ‘অভিনয় আমার পেশা। সেখানে আমি চূড়ান্ত পেশাদার। কাউকে নিয়ে কোনো ছুঁৎমার্গ নেই আমার।’

প্রসঙ্গত, ওয়াজেদ আলি সুমন পরিচালিত ভারত-বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় ২০১৬ সালে মুক্তি পায় ‘রক্ত’ সিনেমা। সেই ছবিতে অভিনয় করেছিলেন বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়। ছবিতে পরীমনিও কাজ করেছেন। ছবিতে নাচের একটি দৃশ্যে তাদের একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *