পরীমনির কাপড় চেঞ্জ না করা একটা রাজনীতি’

পরীমনির কাপড় চেঞ্জ না করা একটা রাজনীতি’

মাদক মামলায় ঢালিউডের আলোচিত নায়িকা পরীমনি ও তার সহযোগী আশরাফুল ইসলাম দীপুকে ফের দুদিন করে রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত।

রিমান্ড শুনানির দিন (৫ আগস্ট) যে পোশাকে পরীমনিকে আদালতে হাজির করা হয়েছিল ঠিক একই পোশাকে মঙ্গলবার তাকে দেখা যায়। অর্থাৎ এক কাপড়েই ১২০ ঘণ্টা পার করেছেন পরীমনি।

আদালতে শুনানি চলাকালে কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে কান্নারত পরীমনিকে দেখিয়ে তার আইনজীবী মজিবুর রহমান বলেন, ‘একজন নায়িকা ১২০ ঘণ্টা এক পোশাকে রয়েছেন। তিনি তো একজন নায়িকা। তার তো একটা লাইফস্টাইল রয়েছে।’

তখন পরীমনিকে ১২০ ঘণ্টা এক কাপড়ে রেখে আদালতে উপস্থিত হওয়াকে ‘রাজনীতি’ বলেন রাষ্ট্রপক্ষের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আব্দুল্লাহ আবু।

তিনি বলেন, ‌‘পরীমনির কাপড় চেঞ্জ না করা একটা রাজনীতি। এখানে সবাই কাপড় চেঞ্জ করেছেন। তিনি ইচ্ছাকৃতভাবে কাপড় পাল্টে আসেননি।’

এ বিষয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক গোলাম মোস্তফা বলেন, ‘আসামি পরীমনিকে কাপড় দেয়া হয়েছে। তিনি এখানে আসার আগে এ কাপড় পরেছেন। এর আগে তিনি অন্য কাপড় (টি-শার্ট) পরেছিলেন।’

শুনানি শেষে গণমাধ্যমের সামনে একই প্রসঙ্গটি আনেন পরীমনির আইনজীবী মজিবুর রহমান। তিনি জানান, এটা খুবই দুঃখজনক। গ্রেফতারের পর থেকে ১২০ ঘণ্টা এক কাপড়ে রিমান্ডে রয়েছেন পরীমনি।

এ সময় সাংবাদিকদের পরীমনি বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে দায়ের করা সব মামলাই মিথ্যা। সাংবাদিক ভাইয়েরা আপনারা তদন্ত করেন। আমাকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে।’

প্রসঙ্গত, গত ৪ আগস্ট বিকেলে পরীমনির বনানীর বাসায় অভিযান চালায় র‍্যাব। প্রায় ৪ ঘণ্টার অভিযান শেষে রাত ৮টার দিকে তাকে আটক করে র‍্যাব সদরদফতরে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় তার বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মাদক জব্দ করার কথা জানায় র‌্যাব। এ ঘটনায় পরদিন পরীমনির বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে র‍্যাব বাদী হয়ে একটি মামলা করে।

দ্বিতীয় দফায় রিমান্ডে নিতে মঙ্গলবার পরীমনিকে আদালতে হাজির করা হয়েছিল। বিষয়টি জানতে পেরে পরীমনিকে একনজর দেখতে আদালত প্রাঙ্গণে এসেছিলেন তার নানা শামসুল হক। কিন্তু নাতনিকে দূর থেকে দেখার সুযোগ হলেও কথা বলা সম্ভব হয়নি। তার দুদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *