নববধূর ঝুলন্ত লা’শ উদ্ধার!

চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে মাইমুনা মাহি (১৯) নামে এক গৃহবধূর লা’শ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার রাতে উপজেলার সাহেরখালীর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের ভোরের বাজার এলাকার বেলু ড্রাইভার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মাইমুনা উপজেলার ১২নং খৈয়াছরা ইউনিয়নের নিজতালুক গ্রামের মেহেরুল মুন্সী বাড়ির মৃত নিজাম উদ্দিনের মেয়ে। তিনি নিজামপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী।

জানা গেছে, ৪ মাস আগে মাইমুনার সঙ্গে সাহেরখালী ইউনিয়নের ভোরেরবাজার এলাকার ভেলু ড্রাইভার বাড়ির মো. ইউনুস মিয়ার ছেলে ইকবাল হোসেন রিপনের বিয়ে হয়।

বিয়ের পর প্রথম কয়েক মাস ভালোভাবে সংসার চলছিল। তার পড়াশোনা নিয়ে গত কিছুদিন ধরে শাশুড়ির সঙ্গে মনোমালিন্য চলছে বলেও জানা গেছে। এজন্য স্বামী রিপনকে নিয়ে মাইমুনা আলাদা হয়ে যান।

নিহতের স্বামীর দাবি, শনিবার দুপুরে স্বামী-স্ত্রী দুইজনই একসঙ্গে দুপুরের খাবার খান। সন্ধ্যার পর স্বামী রিপন বাহির থেকে এসে দেখেন দরজা খোলা এবং ভেতরে গিয়ে দেখেন ঘরের তীরের সঙ্গে লাশ ঝুলছে।

নিহত মাইমুনার বোন রাজিয়া সুলতানা অভিযোগ করেন, শাশুড়ি প্রায়ই আমার বোনকে বকাঝকা করতেন। শনিবারও মাইমুনাকে বকাঝকা করেছেন। এজন্য সে আত্মহত্যা করেছে। আমরা এই দোষীদের শাস্তি চাই। এ বিষয়ে আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা করব।

মীরসরাই থানার ওসি মুজিবুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে রাত ১২টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে ভিকটিমের লা’শ উদ্ধার করা থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

লা’শের ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে আসার আগে বলা যাবে না এটি হত্যা না আত্মহ’ত্যা। তবে ঘটনার সঠিক তদন্ত ও করা হবে বলে জানান তিনি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *