আটকে গেল সিনহা হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ


করোনায় লকডাউনের কারণে আটকে গেল আলোচিত মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ।

সোমবার বাদীপক্ষের সাক্ষী গ্রহণ করবেন না আদালত।

চলমান লকডাউনে আদালতের কার্যক্রম বন্ধ থাকায় পূর্ব নির্ধারিত সময়ে সাক্ষ্যগ্রহণের কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর ফরিদুল আলম চৌধুরী।

তিনি জানান, গেল ২৭ জুনে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ ইসমাইল সিনহা হত্যা মামলার চার্জগঠন করেন। এ সময় বিজ্ঞ বিচারক ২৬-২৭ ও ২৮ জুলাই এ মামলায় বাদীপক্ষের সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য করেন।

কিন্তু সোমবার প্রথম দিনের মতো আদালত বাদীপক্ষের সাক্ষ্যগ্রহণের নির্দেশনা দিলেও লকডাউনের কারণে তা আর হচ্ছে না।

তিনি জানান, ২৬ জুলাই ভার্চুয়ালি যদি আদালত বসে, তবে সাক্ষী গ্রহণের পরবর্তী তারিখ সম্পর্কে জানা যাবে।

মামলার বাদী মেজর সিনহার বোন শারমীন ফেরদৌস যুগান্তরকে বলেন, সাক্ষীরা প্রস্তুত থাকলেও করোনার কারণে পূর্ব নির্ধারিত সময় সাক্ষ্যগ্রহণ হচ্ছে না। আদালতের কার্যক্রম স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত সাক্ষ্যগ্রহণে ব্যাঘাত ঘটতে পারে। তবে আশা করছি দ্রুত আদালতের কার্যক্রম স্বাভাবিক হবে।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর চেকপোস্টের গাড়ি তল্লাশি কেন্দ্র করে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান।

এ ঘটনায় করা হত্যা মামলায় ওই বছরের ১৩ ডিসেম্বর ওসি প্রদীপ কুমার দাসসহ ১৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেন তদন্ত কর্মকর্তা র্যাব ১৫-এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. খায়রুল ইসলাম।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *