দ্বিতীয় বিয়ে গোপন রাখায় কলেজশিক্ষককে গণধোলাই


দ্বিতীয় বিয়ে করে গোপন রাখায় কাজী আব্দুল্লাহ ওরফে কাজী তারেক (৫২) নামের এক কলেজশিক্ষককে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী গণধোলাই দিয়েছে। মঙ্গলবার বিষয়টি প্রকাশ হলে জয়কৃষ্ণপুর গ্রামের দ্বিতীয় শ্বশুরবাড়ি এলাকার ক্ষুব্ধ লোকজন কাজী তারেককে গণধোলাই দেয়।

গণধোলাইয়ের শিকার কাজী তারেকের বাড়ি পাংশা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউপির কাজীপাড়ায়। তিনি পাংশা উপজেলার হাবাসপুরে ডক্টর কাজী মোতাহার হোসেন কলেজের প্রদর্শক এবং বাহাদুরপুর কাজীপাড়ায় নতুন প্রতিষ্ঠিত পন্ডিত আবুল হোসেন কলেজের গণিত বিষয়ের শিক্ষক।

জানা গেছে, প্রথম স্ত্রী থাকার পরও বছরখানেক আগে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কলেজের এক ছাত্রীকে বিয়ে করে তা গোপন রাখেন তিন সন্তানের জনক কলেজশিক্ষক তারেক। কলেজ পড়ুয়া ওই ছাত্রীর বাড়িও বাহাদুরপুর ইউপির জয়কৃষ্ণপুর গ্রামে।

এ বিষয়ে ওই কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ তোফাজ্জেল হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে গণধোলাইয়ের ঘটনাটি শুনেছেন বলে তথ্য নিশ্চিত করেন। এ ঘটনার ফলে তিনি বিব্রত বলে জানান।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী কলেজ শিক্ষক কাজী আব্দুল্লাহ তারেক যুগান্তরকে গণধোলাইয়ের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, ঘটনাটি সঠিক। তবে এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে থানায় কোনো অভিযোগ করিনি বলে জানান তিনি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *