ঈদে যুদ্ধবিরতির ব্যাপারে যা বলল তালেবান


আফগানিস্তানে অবস্থিত ১৫টি দেশের কূটনৈতিক মিশন এবং ন্যাটো তালেবানের কাছে ঈদে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছে। তবে এই আহ্বানে সাড়া মেলেনি তালেবানের কাছ থেকে।

অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, চেক প্রজাতন্ত্র, ডেনমার্ক, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, জর্মানি, ইটালি, দক্ষিণ কোরিয়া, স্পেন, সুইডেন, ব্রিটেন, যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো তালেবানের কাছে এই যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে এক সম্মলিত বিবৃতিতে জানিয়েছিল, আসন্ন উপলক্ষে তালেবান যেন অস্ত্র নামিয়ে রেখে সমগ্র বিশ্বকে শান্তির বার্তা দেয়।

বন্দিদের মুক্তি বিনিময়ে ঈদে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবে তালেবান রাজি হয়েছে গণমাধ্যমের এমন খবর সত্য নয় বলে দাবি করেছেন তালেবানের মুখপাত্র মোহাম্মত নায়েম।

এদিকে, কাতারের রাজধানী দোহায় আফগান সরকারের প্রতিনিধিদের সঙ্গে তালেবান নেতৃত্বের বৈঠকের কোনো শান্তিপূর্ণ সমাধানের পথ বের হয়নি।

তবে ঈদে যুদ্ধবিরতিতে রাজি না হলেও তালেবানের সঙ্গে শান্তি আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার বার্তা দিয়েছেন আফগান সরকারের প্রতিনিধিরা। তালেবানও আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে সম্মত হয়েছে।

এদিকে আলোচনার পথ খোলা রাখার কথা বললেও আফগানিস্তানের একের পর এক এলাকা নিজেদের দখলে নেওয়ার প্রক্রিয়া অব্যাহত রেখেছে তালেবান। সোমবার তারা কাবুলের দক্ষিণ-পশ্চিমে দেহরাউদ জেলার উরুজ়গান প্রদেশ দখল করেছে। তবে উত্তর আফগানিস্তানের দারা-এ সফ বালা জেলার সমানগান প্রদেশ তালেবানের হাত থেকে নিজেদের দখলে নিয়েছে আফগান সেনা। একমাত্র রাজধানী শহর ছাড়া সেখানকার সব জেলাই নিজেদের দখলে বলে দাবি করছে তালেবান।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *