জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন রাশেদ সীমান্ত


ছোটবেলায় মাঝে মধ্যে স্কুলের বার্ষিক অনুষ্ঠানে একক অভিনয় করতেন রাশেদ সীমান্ত। বড় হয়ে সেই কাজটিও করেননি তিনি। পড়ালেখা শেষ করার পর চাকরি জীবনে ঢুকে পড়েন। বর্তমানে একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলের মার্কেটিং বিভাগে চাকরি করেন এই তরুণ অভিনেতা। অনেকটা শখের বসেই ২০১৮ সালের ঈদে আল হাজেনের পরিচালনায় ‘যেই লাউ সেই কদু’ নাটকে অভিনয় করেন। সাবলীল অভিনয়ের কারণে অভিষেকেই প্রশংসিত হন তিনি।

এরপর থেকে এখন পর্যন্ত প্রতি ঈদ ও ভালোবাসা দিবসের নাটকে অভিনয় করে যাচ্ছেন রাশেদ সীমান্ত। ২০১৯ সালের কুরবানির ঈদের নাটক ‘মধ্য রাতের সেবা’তে অভিনয় করে দারুণ প্রশংসিত হন। ইউটিউবের মাধ্যমে নাটকটির ভিউ ছিল প্রায় ১০ কোটির মতো। ২০২০ সালের দুই ঈদে ‘জামাই বাজার-১’ ও ‘জামাই বাজার-২’ নাটক দুটিও প্রায় দুই কোটির মতো ভিউ হয়। অল্প সময়েই তারকা বনে যাওয়া এই অভিনেতা আগামী ঈদেও চারটি নাটকে অভিনয় করেছেন। নাটকগুলো বৈশাখী টিভিতে প্রচার হবে।

ঈদের দিন রাত ৮টা ১০ মিনিটে রোমান রুনির পরিচালনায় প্রচার হবে নাটক ‘হাটা জামাই’।

ঈদের দ্বিতীয় দিন রাত ১১টা ৫ মিনিটে প্রচার হবে একক নাটক ‘নয়ন তারা স্টোর’। এটি পরিচালনা করেছেন মিলন ভট্ট।

ঈদের তৃতীয় দিন রাত ৮টা ১০মিনিটে প্রচার হবে একক নাটক ‘ভাইয়ের সাথে একান্ত আলাপে’। এটি পরিচালনা করেছেন তারিক মুহম্মদ হাসান। এছাড়া ঈদের অনুষ্ঠানমালায় প্রতিদিন রাত ১০টা ৩০ মিনিটে প্রচার হবে রাশেদ সীমান্ত অভিনীত একমাত্র ধারাবাহিক ‘প্রবাসী টাকার মেশিন’। টিপু আলম মিলনের গল্পে নাটকটি পরিচালনা করেছেন আল হাজেন।

নাটকে অভিনয় প্রসঙ্গে রাশেদ সীমান্ত বলেন, নাটকে অভিনয় করে এত মানুষের প্রশংসা পাব তা ভাবতেই পারিনি এর আগে। অনেকটা শখের বসেই অভিনয় শুরু করেছিলাম। তবে বর্তমানের পরিকল্পনা হলো প্রতিটি উৎসবের নাটকে অভিনয় করে যাব। আর দর্শক যতদিন আমার অভিনয় পছন্দ করবেন, ঠিক ততদিনই কাজ করব। এখন পর্যন্ত দর্শকের কাছে থেকে যে সাড়া পেয়েছি তা আজীবন মনে থাকবে আমার। সবার কাছে দোয়া চাই যেন এই মহামারির মধ্যেও সুস্থ থাকতে পারি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *